সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে রাঙামাটি পৌর নির্বাচন সম্পন্নঃ বিপুল ভোটের বিজয় নিয়ে আবারও পৌর পিতার দায়িত্বে আকবর হোসেন চৌধুরী

269

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥
বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়ে দ্বিতীয়বারের মতো রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন যুবনেতা আকবর হোসেন চৌধুরী। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আকবর তার নৌকা প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ২২ হাজার ৮০১; তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী এ্যাডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন পেয়েছেন ৬ হাজার ৯৩৫ ভোট।

রাঙামাটি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ শফিকুর রহমান রোববার রাত ৯টায় তাঁর কার্যালয়ে বেসরকারীভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন। ফলাফল অনুযায়ী তৃতীয়স্থানে থাকা অমর কুমার দে (মোবাইল) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১,৯৪৩ ভোট, চতুর্থ স্থানে রয়েছে জাতীয় পার্টির প্রজেশ চাকমা (লাঙ্গল) তার প্রাপ্ত ভোট ১৬৯২ এবং পঞ্চম স্থানে থাকা ওয়াকার্স পার্টির আব্দুল মান্নান রানা (কোদাল) পেয়েছেন ২৬০ ভোট।

এর আগে রোববার দিনভর অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণ চলাকালে কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। রাঙামাটিতে প্রথমবারের মতো (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ইভিএমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে এই পৌর এলাকার ভোটারগণ।

দিনের বেলা কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে শীত উপেক্ষা করে ভোর সকালেই ভোটকেন্দ্রে এসে উপস্থিত হয়েছেন নারী ও পুরুষ ভোটাররা। সকাল থেকে কয়েকটি ভোট কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, পুরুষদের সাথে সমান তালে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে লাইনে দাঁড়িছেন নারী ভোটাররাও।

রাঙামাটি আসনের সংসদ সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি সকালে শহরের বিদ্যুৎ রেস্ট হাউজ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এ সময় ভোট গ্রহণের শান্ত পরিবেশ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।

বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আকবর হোসেন চৌধুরী সকাল সাড়ে ৮টায় আলফেসানী একাডেমি বিদ্যালয় কেন্দ্রে নিজের ভোট দেন। আর বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়া এডভোকেট মামুনুর রশিদ তার ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন সকাল ৮টার কিছু পরেই শাহ উচ্চ বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে।

নারী ভোটার মনি আক্তার জানান, ঘুম থেকে উঠে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে এসেছি। তবে আশা করি যেই পৌর মেয়র হবেন, তিনি যেন সবসময় আমাদের পাশে থাকেন। কয়েকজন পুরুষ ভোটার জানান, সকাল-সকাল ভোট দিলাম কারণ হাতে অনেক কাজ আছে, এখন ভোট না দিলে আর ভোট দেওয়া হত না।

রাঙামাটিতে এই প্রথম বারের মতো ইভিএমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ভোটাররা। রাঙামাটির পৌর এলাকার ৩১টি ভোট কেন্দ্রে ৬২ হাজার ৯১৩ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে। এর মধ্যে ৩৪ হাজার ২৫২ জন পুরুষ ভোটার এবং ২৮ হাজার ৬৭১ জন নারী ভোটার ছিলেন।

রাঙামাটির পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ ৫ জন, কাউন্সিলার পদে ৪১ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলার পদে ১৯ জন প্রার্থীসহ মোট ৬৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। চতুর্থ ধাপে ৫৫টি পৌরসভার মধ্যে ৩১টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এবং ২৫টিতে কাগজের ব্যালটে ভোট গ্রহণ করা হবে বলে কমিশন সূত্রে জানা গেছে।