অটিজম ও প্রতিবন্ধীদের প্রতি সহানুভূতিশীল হোন >> চিনু এমপি

362

॥ মঈন উদ্দীন বাপ্পী ॥ জাতীয় সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু বলেছেন, কেউ প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম হয়ে গ্রহণ করে না। আর প্রতিবন্ধী হয়ে জন্মগ্রহণ করাটা তার দোষ নয়। কিন্তু আমাদের সমাজে অটিজম শিশুদের অবেহেলা ও অযতেœর রাখা হয়। আমরা মানুষ, সৃষ্টির সেরা জীব। একজন সুস্থ মানুষের এ পৃথিবীতে যেমন বাঁচার অধিকার রয়েছে তেমনি একজন অটিস্টিক মানুষের তেমনি বাঁচার অধিকার রয়েছে। অটিজম বা প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম নেওয়া তার অপরাধ নয়। পাশাপশি তার জন্মদাতাদেরও দোষ নয়। আমরা যতদিন আমাদের পুরনো ধ্যাণ-ধারণা থেকে বেরিয়ে আসতে পারবো না ততদিন আমরা আমাদের অটিস্টিক সন্তানদের প্রতি দায়িত্বশীল হতে পারবো না। কিন্তু আমাদের ভুলে গেলে চলবে না একজন অটিস্টিক আমার-আপনার সন্তান। তাকে একটু সযতœ করলে সুস্থ মানুষের মত সেও সম্পদে পরিণত  তে পারে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য সায়মা ওয়াজেদ পুতুল তা আমাদের তথা জাতিকে বুঝিয়ে দিয়েছেন কিভাবে একজন অটিস্টিক শিশু তার মেধাকে কাটিয়ে দেশের প্রতি াবদান রাখতে পারে।

ন্যাশনাল একাডেমী ফর অটিজম এন্ড নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল ডিজএ্যাবিলিটিস’র আয়োজনে উপজেলা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সোমবার দিনব্যাপী অটিজম ও নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধকতা বিষয়ক কর্মশালা প্রধান অতিথির বক্তব্য এমপি চিনু এসব কথা বলেন।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অরুন কান্তি চাকমার সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন,উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা স্বপন চাকমা। অটিজম ও স্নায়ুবিকাশজনিত প্রতিবন্ধিকতা সংজ্ঞা, ধারণা প্রদান করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রূহী বনাণী। দিনব্যাপী কর্মশালার মাস্টার ট্রেইনার ছিলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল খালেক। চিনু এমপি আরো বলেন, অটিস্টিক শিশু এখন দেশের এবং মা-বাবার বোঝা নয় বরং দেশের সম্পদ। তাদের অবহেলার কোন সুযোগ নাই। তাদের দরকার সঠিক যতœ, ভালবাসা ও সঠিক পথে পরিচারনা কর্ াতাহলে তারা মা-বাবা,সমাজ ও দেশের সম্পদে পরিণত হবে।