এ ছিল সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এক সফল মহা সমাবেশ

435

 

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

প্রতিটি মানুষের মাঝেই কোনো না কোনো রাজনৈতিক আদর্শের প্রতি টান থাকে। থাকে কোনো দলের প্রতি বিশষ অনুরাগ। আর তাই অনেক সময় ভালো কিছু করার উদ্যোগ হলেও রাজনৈতিক বৈরিতা আর জাত্যাভিমানের কারণে মানুষ সে উদ্যোগের সাথে একাত্ম হতে পারে না। কিন্তু রোববার রাঙামাটি শহরে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত মহাসমাবেশ ছিল এর ব্যতিক্রম। এখানে ছিল না কোনো জাতপাত বা রাজনৈতিক অভিলাষ। কেউ কোনো ফায়দা লুঠতে আসেনি, কারো ভোটের অভিপ্রায়ও ছিল না।

সে কারণেই মহা সমাবেশে যোগ দিতে যখন উপজেলা থেকে মানুষ আসতে শুরু করে। তখন শহরের বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যবসায়ী ও দোকানদারেরা তাদের ব্যবসা গুটিয়ে রেখে রাস্তায় নেমে পড়ে। যোগ দেয় প্রতিবাদের মিছিলে, দাবি আদায়ের সংগ্রামে। তখন ভাবারও অবকাশ পায়নি তিনি কোন রাজনৈতিক মতাদর্শের অনুসারী। পথচারীদের ভিড়ে এসময় রাঙামাটি শহরে আপনাতেই সকল ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এ সময় কষ্টে পড়ে স্কুল ফেরৎ ছাত্রছাত্রীরা। অনেক মানুষ তাদের প্রয়োজনীয় কাজ সারতেও অসুবিধায় পড়েন। কিন্তু কেউ কাউকে অনুযোগ করে বলেননি, কেন এই বিড়ম্বনা। কারণ পাহাড়ের মানুষ প্রতিনিয়ত নিরাপত্তার যে বিড়ম্বনা সাথে বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছে তার তুলনায় এ বিড়ম্বনা যেন ছিল খুবই সামান্য অতি নগন্য।

সমাবেশে পাহাড়ি সমাজের মানুষ কমই ছিল। কিন্তু যারা কাজের প্রয়োজনে সমাবেশস্থল পার হয়েছেন, কারো মাঝে কোনো ভীতি বা ভয়য়ের চিহ্নও দেখা যায় নি। কারো সাথে কোনো পথচারীর কোনো ধরণের বসচা হয়নি। জাত-পাত, রাজনৈতিক ভেদাভেদ সবকিছু ভুলে সবাই যেন একাত্ম ছিল পাহাড়ে শান্তির অন্বেষায় নিরাপত্তার প্রত্যাশায়। সবার কণ্ঠে একটাই বিস্ময় ছিল; নিকট সময়ে রাঙামাটিতে আর এতবড় সমাবেশ বা জন সমাগম চোখে পড়েনি। এ যেন ছিল সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এক সফল মহা সমাবেশ।