পার্বত্য নাগরিক পরিষদের সদস্য সংগ্রহ অভিযান চলছে

326

শনিবার বিকেল ৫টায় রাঙামাটি শহরের কাঠালতলী এলাকায় ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনের পার্শ্বে অস্থায়ী কার্যালয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ রাঙামাটি জেলার আওতাধীন পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ড শাখার সদস্য সংগ্রহ অভিযান অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ শাব্বির আহম্মেদের সভাপতিত্বে ও স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য মোঃ হাবিব আজমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব ও বাঘাইছড়ি পৌরসভার সাবেক মেয়র আলমগীর কবির, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক মোঃ সোলায়মান, রাঙামাটি নাগরিক পরিষদের অন্যতম নেতা মোঃ ইব্রাহিম, মোঃ নজরুল ইসলাম, হুমায়ুন কবির, মোঃ আলী হোসেন, সাইদুল ইসলাম রতন, মোঃ নূর হোসেন, হিরু তালুকদার, মাওঃ ইব্রাহিম, মোঃ জাকির হোসেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা পরিষদের নেত্রী মোর্শেদা আক্তার, পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ নেতা মোঃ নাজিম আল হাসান, তাজুল ইসলাম, মামুনুর রশীদ, মোঃ সোলায়মান, মোঃ সাইফুল ইসলাম, মোঃ সোহেল, মোঃ সুলতান, মোঃ মোস্তফা রাজু সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সদস্য সংগ্রহ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব আলমগীর কবির বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে দেশদ্রোহী রাজাকার দেবাশীষ রায়, সন্তু লারমা, প্রসিত খীসারা পাহাড়কে অশান্ত করে পাহাড়ের সম্প্রীতি নষ্ট করতে চাচ্ছে, সন্তু, প্রসিতের নেতৃত্বাধীন সন্ত্রাসী সংগঠন জেএসএস, ইউপিডিএফ কর্তৃক খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় পল্লী চিকিৎসক ডা. টিপুকে হত্যা, দিঘীনালার বাবু ছড়ায় আব্দুল মালেকের পরিবারের উপর ব্রাশ ফায়ার করে তার স্ত্রীকে নির্মমভাবে হত্যার মাধ্যমে উস্কানি দিয়ে সাম্প্রদায়িকক দাঙ্গা লাগানোর ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

কিন্তু পাহাড়েরর বাঙালীরা শান্তি প্রিয়, বাঙালীরা সম্প্রীতি চায়, তাই কোন ধরনের উত্তেজনা তৈরি না করে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের মাধ্যমে এসব হত্যাকান্ডের বিচার দাবী করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ। পাহাড়ে আস্থা ও বিশ্বাসের সংকট তৈরি হচ্ছে জেএসএস ও ইউপিডিএফের কারনে, তাই সশস্ত্র সংগঠন জেএসএস ও ইউপিডিএফ সহ পাহাড়ের সকল সন্ত্রাসী পাহাড়ী সংগঠন নিষিদ্ধ ঘোষনা করে সকল অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে পাহাড়ে শান্তি আনতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি শাব্বির আহম্মেদ বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার আওতাধীন পৌর এলাকায় ৭নং ওয়ার্ডের কাঁঠালতলী এলাকায় সদস্য সংগ্রহ অভিযানের মাধ্যমে রাঙামাটিতে সংগঠনের কার্যক্রম আরো গতিশীল হবে।

কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ সম্পাদক মোঃ সোলায়মান বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ পাহাড়েরর মানুষের আস্থার একটি সংগঠন, এই সংগঠন সকলের অধিকার আদায়ে কাজ করবে, পাহাড়ে নির্যাতিত নিপীড়িত সকল জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়াবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি