পাহাড়ে কাল বৈশাখীর ছোঁবল খাগড়াছড়িতে দু’ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ

381

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

বুধবার হঠাৎ করেই পাহাড়ি তিন জেলায় কাল বৈশাখী হানা দেয়। সকাল ৭টা দিকে রাঙামাটিতে শুরু হওয়া ঝড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যববস্থার ব্যাপক ক্ষতি হয়। যা সারাতে সারাদিন গলদঘর্ম হয় বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন। এদিকে খাগড়াছড়িতে কাল বৈশাখীর তান্ডবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বুধবার সকাল ৯ টার দিকে হঠাৎ ঝড়ো বাতাসে গাছপালা ভেঙ্গে যায় ও বসতবাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তবে এ সময় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।
কাল বৈশাখির হঠাৎ ঝড়ে গুইমারা বাজার এলাকায় গাছ ভেঙ্গে গিয়ে খাগড়াছড়ি চট্টগ্রাম সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে সড়ক ও জনপথ বিভাগ গাছপালা সরিয়ে সাড়ে ১০ টার দিকে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

এছাড়াও ভোর রাতে হঠাৎ করে ঝড়ো বাতাসে ভোর ৫ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন ছিল খাগড়াছড়ি সদর সহ বিভিন্ন উপজেলায়। কাল বৈশাখীর ঝড়ো হাওয়ায় আম, লিচুসহ মৌসুমি ফল বাগানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

গুইমারার বড়পিলাক এলাকার ফল বাগানী সাইফুল বলেন, আম বাগানে এখন ফলনে ভরপুর। আগামী মাসে আম বাজারজাত করার প্রস্তুতি ছিল। হঠাৎ ঝড়ো হাওয়ায় বাগান লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। কালবৈশাখী ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে গুইমারায়। বাড়ি ঘরে গাছপালা পড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

গুইমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, কাল বৈশাখি ঝড়ে চট্টগ্রাম খাগড়াছড়ি সড়কের গুইমারা বাজারে গাছ পড়ে ২ ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। সওজ বিভাগ গাছ সড়ক থেকে অপসারণ করে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

খাগড়াছড়ি বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী স্বাগত সরকার জানান, ঝড়ো হাওয়ায় বেশ কিছু এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটি ও লাইনের ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে তা সমাধান করে ধাপে ধাপে সংযোগ চালু করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।