বাঙ্গালহালিয়া ইউপির দুই সদস্য রহস্যজনজক নিখোঁজ

28

॥ রাজস্থলী প্রতিনিধি ॥

বাঙ্গালহালিয়ায় গত নয়দিন ধরে স্থানীয় দু’জন জনপ্রতিনিধি রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে চন্দ্রঘোনা থানা পুলিশ। তবে স্বজনদের দাবি তাদেরকে জেএসএস কর্তৃক অপহরণ করা হয়েছে। নিখোঁজ দু’জনের একজন রাজস্থলী উপজেলাধীন বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ক্যাচিং হ্লা মারমা (৩৪) ও অপরজন ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ইখ্যাই মং মারমা (৩৬)।

নিখোঁজদের মধ্যে ক্যাচিং হ্লা মারমা’র স্ত্রী বাঙ্গালহালিয়াস্থ চন্দ্রঘোনা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনসারুল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা বিষয়টি অবহিত হয়েছি এবং তাদেরকে উদ্ধারে তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, কে বা কারা এই ঘটনার সাথে জড়িত সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। নিখোঁজদের উদ্ধারের পর বিস্তারিত জানা যাবে।

এদিকে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ক্যাচিং হ্লা মারমার পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, গত ৭ এপ্রিল সকালে বাঙ্গালহালিয়া বাজারে এসে দুই মেম্বার একসাথেই নিখোঁজ হন। এই ঘটনার পর থেকেই তাদের খোঁজে বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করেও কোনো খবর পায়নি পরিবার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, অপহৃত দু’জনকেই উপজাতীয়দের আঞ্চলিক সংগঠন জেএসএসের পক্ষ থেকে প্রাণনাশের হুঁমকি দেয়া হয়েছিল। এই হুমকির কারণেই ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার ইখ্যাই মং মারমা প্রাণভয়ে আগাপাড়া না থেকে বাঙ্গালহালিয়া বাজারে তালুকদার মার্কেটের তিন তলায় স্বপরিবারে বসবাস করতেন। এভাবে তারা ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

নিখোঁজে’র দিন তারা দুইজন একসাথে বাজারে আসেন। তারপর থেকে তারা অদ্যাবধি নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ ও তাদের সাথে কোন প্রকারের যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে নিখোঁজের পরিবার ক্যাচিং হ্লা মারমার স্ত্রী চন্দ্রঘোনা থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন।