ভূপ্রাকৃতিক বৈশিষ্ট আবহাওয়া পরিবর্তন বন ধংস পাহাড় কাটা ও অতিবৃষ্টি পাহাড় ধসের জন্য দায়ী

568

॥ বিশেষ প্রতিনিধি ॥

পার্বত্য চট্টগ্রাম ও চট্টগ্রাম জেলায় ক্রমাগত পাহাড় ধসের কারণ হিসেবে ভূপ্রাকৃতিক বৈশিষ্ট, আবহাওয়া পরিবর্তন, ডি-ফরেষ্টেশন, অপরিকল্পিত ভাবে পাহাড় কাটা, অতিবৃষ্টি, বজ্রপাত ও ভূমিকম্প পাহাড় ধসের প্রধান কারণ বলে মত প্রকাশ করা হয়েছে জাতীয় কনভেনশনের প্রাক কর্মশালায়। কর্মশালায় আরো বলা হয়, উল্লেখিত কার্যকারণে পাহাড়ের বিভিন্ন স্থানে মাটির ফাটল দেখা দেয় এবং সেই ফাটল দিয়ে বৃষ্টির পানি প্রবেশ করে  পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটছে। বক্তাগণ জুম চাষের পদ্ধতি পরিবর্তন, একই স্থানে প্রতিবৎসর জুম চাষ  করা, সাবলীল পয়ঃ নিষ্কাশন না থাকাসহ আরো কিছু কারণ চিহ্নিত করেছে। কনভেনশনে এব্যাপারে করণীয় নির্ধারেণে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

রাঙামাটিসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোয় ক্রমাগত পাহাড় ধসের প্রেক্ষাপটে এই কনভেনশন উদ্যোগ গ্রহণ করে সরকার। রোববার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক জাতীয় কনভেনশন ২০১৭ উপলক্ষ্যে ‘ভূমিধস ঃ কারণ চিহ্নিতকরণ ও করণীয় নির্ধারণ’ বিষয়ে এক কর্মশালা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ ফয়জুর রহমান। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, ড. আসলাম আলম, রেক্টর, বিপিএটিসি (সিনিয়র সচিব)। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব ড. অর্দ্ধেন্দু শেখর রায়, মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বুয়েট পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. আব্দুল জব্বার খাঁন।

আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক মোঃ শহিদুল ইসলাম, ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রেশাদ মহম্মদ ইকরাম আলী, রাঙামাটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াৎ হোসেন রুবেল। রেপোটিয়ার হিসেবে কর্মশালার সারসংক্ষেপ উপস্তাপন করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক জনিম উদ্দিন ও বেগম নুরুন্নাহার চৌধুরী। কর্মশালায় রাঙামাটিসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ভূমিধসে ক্ষতিগ্রস্ত ভূক্তভোগীরা অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন।

এরপূর্বে  প্রথম পর্বে কনভেনশন ও মেলার উদ্বোধন করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এম পি। এতে সভাপতিত্ব করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের সচিব শাহ কামাল, স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব সত্যব্রত সাহা। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের  উপাচার্য ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। কনভেশনে সারা দেশ থেকে দুই হাজার প্রতিনিধি অংশ নেয়।